অর্থনৈতিক লেনদেনের ক্ষেত্রে প্লাস্টিক কার্ডের সূচনা

পৃথিবী প্রতিনিয়তই আধুনিক হচ্ছে। জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রেই ধীরে ধীরে আধুনিকতার ছোঁয়া লাগছে। অর্থনৈতিক দিকও সেক্ষেত্রে পিছিয়ে নেই। বর্তমানে অর্থনৈতিক লেনদেনের ক্ষেত্রে কাগজের নোটের বদলে প্লাস্টিক কার্ডের ব্যবহার বাড়ছে। এই প্লাস্টিক কার্ড গুলোকে আমরা ক্রেডিট কার্ড এবং ডেবিট কার্ড নামে চিনি। তবে এই কার্ডের ব্যবহারের সূচনা কবে, কোথায় এবং কার মাধ্যমে তা আমরা অনেকেই জানিনা। চলুন জেনে আসা যাক – 

ক্রেডিট কার্ডের সূচনা 

ফ্র্যাঙ্ক ম্যাকনামারা নামে যুক্তরাষ্ট্রের একজন ব্যবসায়ী ১৯৪৯ সালে নিউইয়র্কের একটি রেস্তোরায় ডিনার করতে যান। কিন্তু খাবারদাবারের পর বিল পরিশোধের সময় তিনি টের পান যে তিনি ভুল করে মানিব্যাগ আনেন নি।  তখন তিনি খাবারের বিল পরে পরিশোধ করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে রেস্তোরাঁটির সঙ্গে একটি চুক্তি সই করেন। তবে ঘটনাটি নিয়ে এমন কথাও প্রচলিত আছে, ম্যাকনামারা তাঁর স্ত্রীকে কিছু নগদ অর্থ নিয়ে রেস্তোরাঁয় আসতে বলেছিলেন।

বিব্রতকর ওই অভিজ্ঞতা থেকেই ম্যাকনামারার মাথায় নগদ অর্থ ছাড়া কীভাবে বিল পরিশোধ করা যায়, সে বিষয় ঘুরপাক খেতে থাকে। ব্যস, অচিরেই একটি আইডিয়া মানে ধারণা খেলে গেল তাঁর মাথায়। সেটি হলো কার্ডের মাধ্যমে তো কাজটি করা যেতে পারে। পরের বছর ১৯৫০ সালেই রালফ স্নেইডার নামে আরেক জনকে সঙ্গে নিয়ে ম্যাকনামারা যুক্তরাষ্ট্রের ভোক্তাদের জন্য চালু করেন প্রথম ক্রেডিট কার্ড ‘দ্য ডাইনারস’ ক্লাব। এ কোম্পানি খোলার প্রধান মূলমন্ত্র ছিল, ‘এখন চুক্তি সই, পরে বিল পরিশোধ’। সে আলোকে নিউইয়র্ক শহরের ২৭টি রেস্তোরাঁর সঙ্গে ম্যাকনামারা চুক্তি করলেন। বন্ধুবান্ধব ও পরিচিত মিলিয়ে ২০০ ব্যক্তি ডাইনারস ক্লাবের সদস্য হলেন। এর পরে সদস্যরা চুক্তিবদ্ধ রেস্তোরাঁগুলোতে আগে খেয়ে পরে বিল দিতেন। প্রথম বছরেই এর সদস্যসংখ্যা ২০ হাজার ছাড়িয়ে যায়। ১৯৫৩ সালের দিকে এটি আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলেও বেশ পরিচিত হয়ে ওঠে। এরই মধ্যে আলফ্রেড ব্লুমিংডেল তাঁর এক বন্ধুর মাধ্যমে নিউইয়র্কে দ্য ডাইনারস ক্লাব নামে একটি কোম্পানি চালু হওয়ার সংবাদও জানতে পারেন। এরপর তিনি ডাইনারস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা ফ্রাঙ্ক ম্যাকনামারা ও স্নেইডারের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠক করেন। এসব বৈঠকের ফলশ্রুতিতে ডাইনারস ক্লাব এবং সাইন অ্যান্ড ডাইন একীভূত হয়ে একটি নতুন কোম্পানি গঠিত হয়। এভাবেই মূলত ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের সূচনা। তবে বাংলাদেশে বাংলাদেশে ১৯৯৬ সালে স্টান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক প্রথম ক্রেডিট কার্ড চালু করে। ওই সময়ে তৎকালীন বণিকবাংলাদেশ (বর্তমানে লংকাবাংলা) ও ন্যাশনাল ব্যাংকও ক্রেডিট কার্ড চালু করে। 

ডেবিট কার্ড 

একটি ডেবিট কার্ড যা ব্যাংক কার্ড, প্লাস্টিক কার্ড বা নোট কার্ড হিসাবে পরিচিত হলো এক ধরনের প্লাস্টিক পেমেন্ট কার্ড। কেনাকাটার ক্ষেত্রে এই কার্ড দিয়ে কার্ডের মালিক তার ব্যাংক একাউন্ট এ থাকা অর্থ সরাসরি ব্যবহার করতে পারে। ১৯৭০ এর দশকের শেষের দিকে এবং ১৯৮০ এর দশকের শুরুর দিকে, লিখিত চেকের বিনিময়ে ডেবিট কার্ডগুলি পণ্য বা পরিষেবার জন্য অর্থের বিনিময় করার জন্য একটি সুবিধাজনক পদ্ধতি হিসাবে শুরু হয়েছিল। বাংলাদেশে সর্বপ্রথম স্টান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক ডেবিট কার্ড চালু করে। তবে বাংলাদেশি ব্যাংক হিসেবে প্রিমিয়ার ব্যাংক প্রথম ডেবিট কার্ড চালু করে। 

তথ্যসূত্রঃ দৈনিক প্রথম আলো ও ইন্টারনেট

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top